দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ

প্রথম মহাযুদ্ধের পর সম্পাদিত ভার্সাই চুক্তিতে পরাজিত জার্মানীর ওপর যে সমন্ত অপমানজনক, ভারসাম্যহীন ও নির্যাতনমূলক শর্তাদি চাপিয়ে দেওয়া হয়েছিল, সেগুলো মেনে চলা কোনো দেশপ্রেমিক ও আত্মসম্মান বোধসম্পন্ন জার্মানের পক্ষেই সম্ভব ছিল না। মিত্রপক্ষের এই অদূরদর্শী ও প্রতিহিংসামূলক শর্তাবলি-ই ছিল দ্বিতীয় মহাযুদ্ধের প্রধান কারণ। এই কারণের সঙ্গে যুক্ত হয়েছিল সাম্রাজ্যবাদী প্রতিযোগিতা, অস্ত্র প্রতিযোগিতা এবং জার্মানদের উগ্র দেশপ্রেম ও আর্য আভিজাত্যবোধ। ১৯৩৯ সালের পয়লা সেপ্টেম্বর পোল্যান্ড আক্রমণের মাধ্যমে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সূচনা হয়। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে আনুমানিক প্রায় ৭ কোটি মানুষের মৃত্যু হয়। (দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ)

 যুদ্ধের সূচনা

  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয় ১ সেপ্টেম্বর, ১৯৩৯ সালে।
  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শেষ হয় ২ সেপ্টেম্বর, ১৯৪৫ সালে। 
  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রধান কারণ জার্মানির নাৎসিবাদ ও সাম্রাজ্যবাদী মনোভাব।
  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ সংঘটিত হয় অক্ষশক্তি ও মিত্রশক্তিদের মধ্যে।
  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয় এডলফ হিটলার কর্তৃক পোল্যান্ড আক্রমণের মধ্য দিয়ে।

অক্ষশক্তিঃ রাশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স।

মিত্রশক্তিঃ জার্মানি, জাপান, ইতালি।

জার্মান চ্যান্সেলর এডলফ হিটলার

পক্ষসমূহের রাষ্ট্রপ্রধানঃ

  • জার্মান চ্যান্সেলর এডলফ হিটলার।
  • জাপানের রাজা/মিকাডো হিরোহিতো।
  • জাপানের প্রধানমন্ত্রী প্রিন্স কনোয়ে ও জেনারল তোজো।
  • ইতালির প্রধানমন্ত্রী বেনিতো মুসোলিনি (১৯২২-১৯৪৩), পিয়েত্রো বাডোগ্লাত্ত (১৯৪৩-১৯৪৬)।
  • ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী নেভিল চেম্বারলেন (১৯৩৭-১৯৪০), ক্লিমেন্ট এটলী (১৯৪৫-১৯৫১)।
  • ব্রিটেনের রাজা ষষ্ঠ জর্জ।
  • যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ফ্রাংকলিন ডি রুজভেল্ট (১৯৩৩-১৯৪৫), হ্যারি এস ট্রুম্যান (১৯৪৫-১৯৫৩)।
  • ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী দালাদিয়ের।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ভিন্ন তথ্যে

  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে যে দেশ ‘হলোকোস্ট’ এর সাথে জড়িত জার্মানি।
  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পিতৃভূমি বলা হয় রাশিয়াকে।
  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ব্রিটিশ অধিনায়ক ছিলেন বার্নার্ড মন্টোগোমারি।
  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের বাফার স্টেট ছিল বেলজিয়ান।
  • মরুভূমিতে যুদ্ধ করে ‘ডেজার্ট ব্যাট’ উপাধি পান বার্নার্ড মন্টোগোমারি।
  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর প্রধান ছিলেন জর্জ মার্শাল।
  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জার্মানি সামরিক বাহিনীর প্রধান ফিল্ড মার্শাল রোমেল।
  • ‘ডেজার্ট ফক্স’ বা ‘মরুভূমির শিয়াল’ নামে পরিচিত ফিল্ড মার্শাল রোমেল।
  • জার্মানির বিরুদ্ধে ব্রিটেন ও ফ্রান্স যুদ্ধ ঘোষণা করে ৩ সেপ্টম্বর, ১৯৩৯।
  • মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরাসরি যুদ্ধে যোগদান করে ৮ ডিসেম্বর, ১৯৪১ সালে।
  • জার্মানি যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে ১১ ডিসেম্বর, ১৯৪১ সালে।
  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পর্যন্ত কোরিয়া ছিল জাপানের অধীনে।
  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে মায়ানমার ছিল জাপানের অধীনে।
পার্ল হারবার

পার্ল হারবার আক্রমণ

  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় মার্কিন নৌ-ঘাটিঁ পার্ল হারবার আক্রমণ করে জাপান।
  • পার্ল হারবার হলো প্রশান্ত মহাসাগরে অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই দ্বীপের হুনুলুলুর কাছে অবস্থিত মার্কিন নৌ-ঘাটিঁ।
  • জাপান পার্ল হারবারে অবস্থিত মার্কিন নৌ-ঘাটিঁ আক্রমণ করে ৭ ডিসেম্বর ১৯৪১ সালে।
  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরাসরি যুদ্ধে যোগদান করে ৮ ডিসেম্বর ১৯৪১ সালে। (দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ)

বিগ থ্রি

  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে বিগ থ্রি নামে পরিচিত রুজভেল্ট, চার্চিল ও স্ট্যালিন।
  • বিগ থ্রির দেশ হিসেবে পরিচিত  যুক্তরাষ্ট্র, ইংল্যান্ড ও রাশিয়া।
  • রুজভেল্ট, চার্চিল ও স্ট্যালিনের মধ্যে তেহরান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় ১৯৪৩ সালে।

হিরোশিমা হামলা

  • হিরোশিমার অবস্থান জাপানের হনসু দ্বীপে।
  • লিটল বয় নামক পারমাণবিক বোমা নিক্ষেপ করা হয় জাপানের হিরোশিমাতে।
  • নিক্ষেপ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ৬ আগস্ট, ১৯৪৫।
  • নিক্ষেপকারী বিমানের পাইলটের নাম কর্নেল পল ওয়ারফিল্ড টিবেটস।
  • লিটল বয় বহনকারী বিমানের নাম বি-২৯ সুপারফোর্টেস। (দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ)
নাগাসাকি হামলা

নাগাসাকি হামলা

  • নাগাসাকি অবস্থান জাপানের কিউসু দ্বীপে।
  • ফ্যাট ম্যান নামক পারমাণবিক বোমা নিক্ষেপ করা হয় জাপানের নাগাসাকিতে।
  • নিক্ষেপ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ৯ আগস্ট, ১৯৪৫ সালে।
  • নিক্ষেপকারী বিমানের পাইলটের নাম মেজর চার্লস ডব্লু সুইনি।
  • ফ্যাট ম্যান বহনকারী বিমানের নাম বি-২৯ সুপারফোর্টেস।

হলোকাস্ট

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে প্রায় ৬০ লক্ষ ইহুদিকে হত্যা করা হয়েছিল। জার্মান নাৎসী বাহিনী এবং হাদের সহযোগীদের দ্বারা ইউরোপীয় ইহুদিদের উপর পরিচালিত গণহত্যার নাম হলোকাস্ট। হলোকাস্ট শব্দটি সর্বপ্রথম ব্যবহার করা হয়েছিল ১৮৯৫ সালে আর্মেনিয়ায় হামিদিয়ান গণহত্যার সময়। (দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ)

কাতিন গণহত্যা

১৯৪০ সালের এপ্রিল এবং মে মাসে সোভিয়েত ইউনিয়নের গোপন পুলিশ বাহিনী দ্বারা চালিত গণহত্যা-ই ‘কাতিন গণহত্যা’ নামে পরিচিত। কাতিন গণহত্যাটি সংঘটিত হয় তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়নের অন্তর্ভূক্ত কাতিন বনে এবং কালিনিন ও খারকিভ কারাগারে। এই গণহত্যায় প্রায় ২২ হাজার পোলিশ বংশোদ্ভূত সরকারি কর্মকর্তা এবং বুদ্ধিজীবীকে হত্যা করা হয়। (দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ)

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সমাপ্তি

  • জার্মানি প্রথম পরাজিত হয় রাশিয়ার নিকট।
  • জার্মানি আত্মসমর্পণ করে ৭ মে, ১৯৪৫ সালে।
  • এডলফ হিটলার আত্মহত্যা করে ৩০ এপ্রিল, ১৯৪৫ সালে।
  • জাপান আত্মসমর্পণের ঘোষণা দেয় ১৪ আগস্ট, ১৯৪৫ সালে।
  • জাপান আত্মসমর্পণ চুক্তি স্বাক্ষর করে ২ সেপ্টম্বর, ১৯৪৫ সালে।
  • “করনারস্টোন অব পিচ” স্মৃতিসৌধটি অবস্থিত জাপানের ওকিনাওয়াতে।
  • “স্ট্যাচু অব পিচ” বা “শান্তি পার্ক” অবস্থিত জাপানের নাগাসাকিতে।
  • ইউরোপে বিজয় দিবস উদযাপন করা হয় ৮ মে, ১৯৪৫ সালে।
  • আনুষ্ঠানিকভাবে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরিসমাপ্তি ঘটে ২ সেপ্টম্বর, ১৯৪৫ সালে, জাপান কর্তৃক চুক্তি স্বাক্ষরের মাধ্যমে।