ফুটবল খেলা

ফুটবল খেলা
  • ফুটবল খেলান জন্ম হয় চীনে।
  • ফুটবলের উর্বর ভূমি হিসেবে খ্যাত ল্যাটিন আমেরিকা।
  • ফুটবল খেলার নিয়মাবলি লিপিবদ্ধ করা হয় ১৮৪৮ সালে।
  • প্রতি দলে খেলোয়াড় থাকে ১১ জন।
  • খেলা চলাকালে প্রত্যেক দল খেলোয়াড় বদল করতে পারে ৩ জন।
  • আদর্শ ফুটবলের পরিধি ৬৮.৫–৭১ সে.মি.।
  • আদর্শ ফুটবলের ওজন ৪০০–৫০০ গ্রাম।
  • ফুটবল মাঠের দৈর্ঘ্য ১০০–১১০ মিটার।
  • ফুটবল মাঠের প্রস্থ ৬৪–৭৫ মিটার।
  • খেলা পরিচালনার জন্য থাকেন রেফারি।
  • খেলায় ট্যাকলিং করা যায় ৩টি উপায়ে।
  • Vedio Assistance for Referees–ফুটবলে নির্ভুল সিদ্ধান্ত গ্রহণে সহায়তা করে।

FIFA

  • আন্তর্জাতিক ফুটবল নিয়মন্ত্রণকারী সংস্থা—FIFA
  • FIFA এর পূর্ণরূপ—Federation of International Football Association।
  • নীতিবাক্য–For the good of the game।
  • প্রতিষ্ঠিত হয় ২১মে ১৯০৪ সালে, ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে।
  • সদর দপ্তর জুরিখ, সুইজারল্যান্ড।
  • ফিফার সভাপতির মেয়াদকাল ৪ বছর।
  • বাংলাদেশ সদস্যপদ লাভ করে ১৯৭৪ সালে।
FIFA

বিশ্বকাপ ফুটবল

  • প্রথম বিশ্বকাপ ফুটবল অনুষ্ঠিত হয় ১৯৩০ সালে, উরুগুয়েতে।
  • প্রথম বিশ্বকাপ ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন দেশ উরুগুয়ে।
  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে ফুটবল বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হয় ১৯৪২ ও ১৯৪৬ সালে।
  • বিশ্বকাপ ফুটবলে অংশগ্রহণকারী প্রথম মুসলিম দেশ মিশর ১৯৩৪ সালে ।
  • প্রথম এশীয় দেশ হিসেবে বিশ্বকাপ ফুটবলে অংশগ্রহণ করে ইন্দোনেশিয়া ১৯৩৮ সালে।
  • বাংলাদেশ বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে অংশগ্রহণ করে ১৯৮৬ সালে।
  • বিশ্বকাপ ফুটবলে দ্রুততম গোলদাতা তুরস্কের হাকান সুকুর ১১ সেকেন্ডে।
  • বিশ্বকাপ ফুটবলে সর্বাধিক গোলদাতা জার্মানির মিরোস্লাভ ক্লোসা ১৬টি।
  • বিশ্বকাপ ফুটবলে এক টুর্নামেন্টে সর্বাধিক গোলদাতা ফ্রান্সের জাস্ট ফন্টেইন ১৩টি।
  • বিশ্বকাপ ফুটবলে সেরা খেলোয়াড়কে দেওয়া হয় গোল্ডেন বল পুরষ্কার।
  • বিশ্বকাপ ফুটবলে সর্বোচ্চ গোরদাতাকে দেওয়া হয় গোল্ডেন বুট পুরষ্কার।
  • বিশ্বকাপ ফুটবলে সেরা গোলরক্ষককে ‍দেওয়া হয় গোল্ডেন গ্লাভ পুরষ্কার।
  • গোল্ডেন গ্লাভ পুরষ্কারের পূর্বনাম ছিল ইয়াসিন অ্যাওয়ার্ড।

ফিফা বিশ্বকাপ জয়ী দল

  • ব্রাজিল মোট জয় ৫ বার (১৯৫৮, ১৯৬২, ১৯৭০, ১৯৯৪, ২০০২)।
  • জার্মানি মোট জয় ৪ বার (১৯৫৪, ১৯৭৪, ১৯৯০, ২০১৪)।
  • ইতালি মোট জয় ৪ বার (১৯৩৪, ১৯৩৮, ১৯৮২, ২০০৬)।
  • আর্জেন্টিনা মোট জয় ২ বার (১৯৭৮, ১৯৮৬)।
  • উরুগুয়ে মোট জয় ২ বার (১৯৩০, ১৯৫০)।
  • ফ্রান্স মোট জয় ২ বার (১৯৯৮, ২০১৮)।
  • ইংল্যান্ড মোট জয় ১ বার (১৯৬৬)।
  • স্পেন মোট জয় ১ বার (২০১০)।
জার্মানি 1954

কিংবদন্তী ফুটবলার

পেলেঃ একজন বিখ্যাত ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার। “কালো মানিক” বলা হয় তাকে। বিশ্বকাপ ফুটবলে সর্বকনিষ্ঠ গোলদাতা। তাঁর আত্মজীবনী মূলক গ্রন্থ My Life and the Beautiful Game।

ডিয়েগো ম্যারাডোনাঃ একজন বিখ্যাত আর্জেন্টাইন ফুটবলার। ফুটবলের রাজপুত্র বলা হয়। ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক। ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হাত দিয়ে করা তাঁর গোলটি “হ্যান্ড অব গড” নামে পরিচিত। ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৬ ইংলিশ ফুটবলারকে কাটিয়ে করা তাঁর গোলটি “গোল অব দ্য সেঞ্চুরি” নামে পরিচিত।

ফ্রেইঞ্জ বেকেনবাওয়ারঃ একজন বিখ্যাত জার্মান ফুটবলার। বিশ্বকাপ জয়ী খেলোয়াড় ও কোচ।

জোহান ক্রূইফঃ একজন বিখ্যাত ডাচ (নেদারল্যান্ডস) ফুটবলার। “টোটাল ফুটবল” এর বাস্তবায়কা।

জর্জ বেস্টঃ একজন বিখ্যাত নর্দান আইরিশ ফুটবলার। দেশের কাগজী মুদ্রায় তাঁর ছবি ছাপা হয়।

লিওনেল মেসিঃ একজন বিখ্যাত আর্জেন্টাইন ফুটবলার। আন্তর্জাতিক ফুটবলে আর্জেন্টিরা ও ল্যাটিন আমেরিকার সর্বোচ্চ গোলদাতা। ফুটবলে সর্বোচ্চ ৭টি ব্যালন ডি’অর জয় লাভ করেন।

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোঃ একজন বিখ্যাত পর্তুগিজ ফুটবলার। আন্তর্জাতিক ফুটবলে দেশের হয়ে সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা।

বাস্কেটবল

বাস্কেটবল খেলান সূচনা করেন ১৮৯১ সালে, ড. জেমস নাইজস্মিথ। বাস্কেটবল খেলায় বাস্কেটের উচ্চতা ১০ ফুট। বাস্কেটবল প্রতিযোগিতায় প্রতি দলে খেলোয়াড় সংখ্যা ৫ জন থাকে। বাস্কেটবল খেলায় দুই প্রান্তে থাকা বাস্কেটকে বলা হয় রিম। অলিম্পিকে প্রথম বারের মত প্রমিলা বাস্কেটবল অন্তর্ভূক্ত করা হয় ১৯৭৬ সালে। মাইকেল জর্ডান নামটি জড়িত বাস্কেটবল খেলার সাথে।